ভোমরা স্থলবন্দরে ওমিক্রন রোধে নেয়া হয়েছে পদক্ষেপ

প্রকাশিত: ৯:১৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১১, ২০২২ | আপডেট: ৯:১৫:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১১, ২০২২

করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন রোধে সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দরে নতুন করে কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে। তবে জিরো পয়েন্ট পার হওয়ার পর ভারত থেকে পণ্য নিয়ে আসা ট্রাকচালক ও সহকারীরা বন্দর এলাকায় উন্মুক্তভাবে ঘোরাঘুরি করছেন।

 

স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রে ভারতীয় ট্রাকচালক ও হেলপাররা যথেষ্ট উদাসীন, তাছাড়া তাদের অনেকের ভিন্ন ভাষাভাষী হওয়ায় স্বাস্থকর্মীদের বিভিন্ন সমস্যার সম্মূখীন হতে হচ্ছে সংশ্লিষ্টদের। 

 

মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) বিকালে সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন ডা. হুসাইন সাফায়াত বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

 

সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন জানান, ওমিক্রন নিয়ে বাড়তি সতর্কতার বিষয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে এখনো কোনো লিখিত নির্দেশনা আসেনি। তবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে তাদেরকে মৌখিক নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। বেশ কিছুদিন শিথিলতা থাকলেও ওমিক্রনের প্রভাব বেড়ে যাওয়ায় সাতক্ষীরা স্বাস্থ্যবিভাগের পক্ষ থেকে স্কেনিং ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে।

 

তিনি আরও জানান, সকালে দুইজন বিকেলে দুইজন স্বাস্থকর্মী দিয়ে চালানো হচ্ছে এ কার্যক্রম। ভারত থেকে আগত সকলকে তাপমাত্রা পরীক্ষা করা হচ্ছে। কারও শরীরে কোনো উপসর্গ থাকলে তাকে হোমকরেন্টিনে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে। প্রয়োজনে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে।

 

ভোমরা ইমিগ্রেশনের অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর হুসাইন খান বলেন, বর্তমানে প্রতিদিন গড়ে ৭০ থেকে ৮০ জন পাসপোর্টধারী যাত্রী আসা-যাওয়া করছেন। এরমধ্যে বেশীরভাগ ভারতীয় নাগরিক। তাদের করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট অনলাইনে চেক করার পর ছেড়ে দেয়া হচ্ছে।

 

তিনি আরও জানান, এছাড়া দুই শতাধিক পণ্যবাহি ট্রাক ভারত থেকে বাংলাদেশে আসছে। এবং ৫০ টির এর মত ট্রাক বাংলাদেশ থেকে ভারতে যাচ্ছে। ট্রাকগুলিতে জীবানুনাশক স্প্রে করা হচ্ছে। তাদের সকলকে জিরো পয়েন্টে তাপমাত্রা পরীক্ষা করা হচ্ছে এবং মাস্ক পরা নিশ্চিত করা হচ্ছে। যাদের মাস্ক নেই তাদেরকে মাস্ক সরবরাহ করা হচ্ছে।

 

এসজি/ডেক্স


আপনার মতামত লিখুন :

নিজস্ব প্রতিবেদক। ডেক্স