কৃষকের ধান কেটে দিলো মনিরামপুর উপজেলার চালুয়াহাটি ইউনিয়ন ছাত্রলীগ

প্রকাশিত: ৪:১১ অপরাহ্ণ, মে ১, ২০২১ | আপডেট: ৪:১১:অপরাহ্ণ, মে ১, ২০২১

কৃষকের এক বিঘা জমির ধান কেটে দিয়েছে ছাত্রলীগ। চলমান মৌসুম এবং লকডাউনের কারণে শ্রমিক সঙ্কটে জমির পাকা ধান কাটতে পারছিলেন না যশোরের মনিরামপুর উপজেলার রাজগঞ্জের চালুয়াহাটি ইউনিয়নের ত্রিপুরাপুর গ্রামের কৃষক জাহাঙ্গীর হোসেন।

খবর পেয়ে সেখানে ছুটে যান রাজগঞ্জের চালুয়াহাটি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ। বুধবার বিকালের দিকে শুরু করে ওই কৃষকের এক বিঘা জমির ধান কাটে দেন তারা। হঠাৎ রাজপথের ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের কৃষকের ক্ষেতের ধান কাটতে দেখে প্রশংসায় ভাসাচ্ছেন সচেতনমহলসহ স্থানীয়রা। চালুয়াহাটি ইউনিয়নের দুই নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিক এর নেতৃত্বে ধান কাটা কাজে অংশ গ্রহণ করেন-ছাত্রলীগ নেতা রাকিবুল ফেরদৌস রাজু, মাসনুর রহমান, আলী রেজা রাজু, মাহবুবুর রহমান, সারিয়া বাচ্চু, শেখ সাদী মেজবা, আসাদ মাহিমসহ আরও অনেকে।

উপকারভোগী জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন- চলমান মৌসুম এবং লকডাউনে শ্রমিক সঙ্কটের কারণে পাকাধান কাটতে পারছিলাম না। এছাড়াও এলাকায় যে শ্রমিক পাওয়া যায় তাদের মজুরি খুব বেশি। ক্ষেতের ধান পাকার পরও তা কাটতে না পারায় কিছুটা ক্ষতির শঙ্কায় ছিলাম। আমার এমন অসহায়ত্বের কথা শুনে ছাত্রলীগের নেতাকর্মী এসে টাকা-পয়সা ছাড়াই আমার এক বিঘা ক্ষেতের ধান কেটে দিয়েছে। তাদের কাছে আমি ঋণি হয়ে গেলাম।

ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিক বলেন- যশোর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সালাউদ্দিন কবির পিয়াস ও সাধারণ সম্পাদক তানজীব নওশাদ পল্লবের নির্দেশনায় উপজেলার চালুয়াহাটি ইউনিয়ন ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে আমাদের এই ধান কাটা কর্মসূচি। সঙ্কটকালে তাদের এ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।


আপনার মতামত লিখুন :

উত্তম চক্রবর্তী। প্রতিবেদক। মণিরামপুর, যশোর