আশাশুনির কুল্যা ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত

প্রকাশিত: ৯:২৫ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৬, ২০২০ | আপডেট: ৯:২৫:অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৬, ২০২০
কুল্যা ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত করছেন ডিডিএলজি মোঃ বদিউজ্জামান।

আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বাছেত আল হারুন চৌধুরীর বিরুদ্ধে ইউপি সদস্যদের আনীত অভিযোগের পুনঃ তদন্ত অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (২৬ ডিসেম্বর) বিকালে ইউনিয়ন পরিষদে এ তদন্ত অনুষ্ঠিত হয়।

ইউনিয়ন পরিষদের সকল ইউপি সদস্যরা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বাছেত আল হারুন চৌধুরীর বিরুদ্ধে অসদাচরণ, বিধি বহির্ভূতভাবে পরিষদ পরিচালনা, দুর্নীতি, অনিয়মসহ বিভিন্ন অভিযোগ এনে অন্স্থাা প্রস্তাব করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে তৎকালীন সহকারী কমিশনার (ভূমি) দায়িত্ব প্রাপ্ত হয়ে তদন্ত শেষে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন।

 

অভিযুক্ত চেয়ারম্যানের আপত্তির প্রেক্ষিতে দায়িত্বপ্রাপ্ত হয়ে অতিঃ জেলা প্রশাসক (জেনারেল) ও ডিডিএলজি মোঃ বদিউজ্জামান সরেজমিন তদন্ত পরিচালনা করেন। তদন্তকালে অভিযুক্ত ইউপি চেয়ারম্যান হারুন চৌধুরী তার নিজের পক্ষে এবং অভিযোগকারী মেম্বারদের মধ্যে আলহাজ্ব আঃ মাজেদ, ইব্রাহিম গাজী, রফিকুল ইসলাম পান্না, উত্তম কুমার দাশ, আলমগীর হোসেন আঙ্গুর, বিশ্বনাথ সরকার, মহিলা মেম্বার পারভিন সুলতানা, শামিমা সুলতানা কুইন, আনোয়ারা খাতুন উপস্থিত থেকে অভিযোগের পক্ষে স্বাক্ষ্য প্রদান করেন।

 

অভিযোগকারীরা বলেন, চেয়ারম্যান কাবিখা, পানির ট্যাংকি, টিউবওয়েল, ভিজিডি তালিকা, কম্বল বিতরণসহ বিভিন্ন খাতে আত্মসাৎ ও অনিয়ম করেছেন এবং রেজুলেশন না করেই বিধিবহির্ভূতভাবে ইউনিয়ন পরিষদের জমিতে পাঞ্জেগানা মসজিদ নির্মান, ইউপি সচিব, মেম্বার ও তথ্যসেবা কেন্দ্রের উদ্যোক্তার অজ্ঞাতে তথ্যসেবার পাচওয়ার্ড পরিবর্তন করাসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগের পক্ষে স্বাক্ষ্য প্রমান দেওয়া হয়েছে। ইউপি চেয়ারম্যান অভিযোগের ব্যাপারে তার ভাষায় জবাব প্রদান করেন। এসময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মীর আলিফ রেজা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অসীম বরণ চক্রবর্তী, পিআইও সোহাগ খান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

নিজস্ব প্রতিবেদক। ডেক্স