কেশবপুরে বিএনপি নেতা আবু বকর আবুর মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

প্রকাশিত: ৭:২১ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৯, ২০২০ | আপডেট: ৭:২১:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৯, ২০২০

যশোর জেলা বিএনপির সহসভাপতি ও মজিদপুর ইউনিয়নের বার বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান আবু বকর আবুর দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে তার কবর জিয়ারত, স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার মজিদপুর ইউনিয়নের বাগদহা গ্রামে বিএনপির নেতাকর্মীরা প্রয়াত নেতা আবু বকর আবুর পরিবারের সদস্যদের নিয়ে কবর জিয়ারত করেন।

শহরের ডাক বাংলো সড়কের বিএনপির কার্যালয়ে দুপুরে এক স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। যশোর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও পৌর বিএনপির সাবেক সভাপতি প্রাক্তন মেয়র আলহাজ্ব আব্দুস সামাদ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে স্মরণসভায় আবু বকর আবুর কর্মময় জীবনের উপর স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য রাখেন, বিএনপি নেতা আবুল কাশেম, ইউপি চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন আলা, অধ্যক্ষ জুলফিকার আলী, সাবেক কাউন্সিলর কুতুব উদ্দীন বিশ্বাস, নুুুরুজ্জামান চৌধুরী, নূরুন্নাহার নূরী, শাহানারা বেগম, আবু নাঈম, রবিউল ইসলাম, প্রভাষক রফিকুল ইসলাম ও শাহজাহান আলী। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন, যুবদল নেতা গোলাম মোস্তফা, শাহ আলম, নজরুল ইসলাম প্রমুখ। দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন, মাওলানা শরিফুল ইসলাম। এ সকল অনুষ্ঠানে পরিবারের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন, ছোট ভাই আবুল কাশেম, ভাইপো হুমায়ুন কবীর ও ভাগ্নে মেহেদী হাসান জাহিদ।

এদিকে আবু বকর আবুর ছোট বোন আঞ্জুমানারা বলেন, ‘আমার ভাই কেশবপুরের বিএনপি নেতাদের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ছিল। একজন পেশাদার রাজনীতিবীদ হিসেবে মানুষের সেবা করতে যেয়ে তিনি জীবনে বিয়েশাদী করেনি। অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় গত ২ বছরেও আমার ভাইকে হত্যার কোন ক্লু উদ্ধার হয়নি। এমনকি গত দুই বছরের মধ্যে এই মামলা সম্পর্কে পুলিশের কোন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা আমাদের পরিবারের সাথে যোগাযোগ করেনি বা কোন তথ্য জানাতে পারেনি।’ তার ভাইয়ের হত্যার সুষ্ঠু তদন্ত এবং খুনীদের গ্রেফতার ও বিচার দাবি করেছেন তিনি।

উল্লেখ্য, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়নের জন্য ঢাকায় যাওয়ার পর চেয়ারম্যান আবু বকর আবু ২০১৮ সালের ১৫ নভেম্বর পল্টন এলাকার মেট্রোপলিটন হোটেল এলাকা থেকে অপহরণ হয়েছিলেন। অপহরণের ৪ দিন পর ১৯ নভেম্বর দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানাধীন তেলঘাট এলাকায় বুড়িগঙ্গা নদী থেকে পুলিশ তার লাশটি উদ্ধার করে হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

মশিয়ার রহমান। নিজস্ব প্রতিবেদক। কেশবপুর, যশোর