সাতক্ষীরায় বোনাই হত্যা মামলায় শ্যালকের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

প্রকাশিত: ৫:০৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১০, ২০২০ | আপডেট: ৫:০৮:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১০, ২০২০
সাতক্ষীরায় বাবু মোল্যা হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃত পুলিশ সদস্য শ্যালক আরিফ হোসেনকে আদালতে নেওয়া হচ্ছে।

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার নীলকণ্ঠপুর গ্রামের ভাটা শ্রমিক আবিদ হোসেন ওরফে বাবু মোল্যার হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃত পুলিশ সদস্য শ্যালক আরিফ হোসেনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দু’ দিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেছে আদালত। মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা কালিগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক জিয়ারত আলী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) দুপুরে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন শুনানী শেষে আমলী আদালত-২ এর বিচারক ইয়াসমিন নাহার এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। আদালতের আদেশ হাতে পাওয়ার পর বুধবার (১১ নভেম্বর) আরিফ হোসেনকে জেলখানা থেকে থানা হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

মঙ্গলবার (২ নভেম্বর দিবাগত রাত) স্বামী-স্ত্রী তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে ঝগড়া করে। ঝগড়া করে আবিদ হোসেন বাবু ঘর থেকে বাইরে গিয়ে সাবিনার ভাই আরিফ হোসেনের কাছে তার বোনের বিরুদ্ধে নালিশ করেন।

এই ঝগড়াকে কেন্দ্র করে ও পারিবারিক নানা সমস্যার জের ধরে সাবিনা ও তার ভাই-বোনসহ অন্যান্য আত্মীয়-স্বজন মিলে পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যা করেন। এরপর তার গলায় ফাঁস লাগিয়ে বাড়ির পেছনের একটি লেবু গাছে ঝুলিয়ে রাখেন।

এমন অভিযোগে নিহতের মা হোনেয়ারা খাতুন বাদি হয়ে ৩ নভেম্বর রাতে নিহতের স্ত্রী সাবিনা, মাগুরা জেলায় শালিখা থানায় কর্মরত পুলিশ সদস্য শ্যালক আরিফসহ ১০ জনের নাম উল্লেখ করে কালিগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরের দিন পুলিশ নিহতের স্ত্রী সাবিনা খাতুনকে গ্রেপ্তার করে। পরে স্বামী বাবু মোল্যা হত্যায় নিজেকে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে সাবিনা খাতুন আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দী দেয়। জবানবন্দীতে তিনি তার ভাই আরিফ হোসেনের সম্পৃক্ততার কথাও জানায়।

এর প্রেক্ষিতে কালিগঞ্জ থানা পুলিশ মাগুরা থেকে পুলিশ সদস্য আরিফ হোসেনকে গ্রেপ্তার করে সাতক্ষীরা আদালতে সোপর্দ করে সাতদিনের রিমান্ড চান।

এদিকে,কালিগঞ্জের বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের নীলকণ্ঠপুর গ্রামের নিহত ভাটা শ্রমিক আবিদ হাসান বাবু হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবীতে মানববন্ধন কর্মসুচি পালিত হয়েছে। নির্যাতিত ও ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্যদের আয়োজনে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০ টায় নিহত বাবুর বাড়ির সামনে উক্ত মানববন্ধন কর্মসুচি পালিত হয়।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, স্থানীয় ইউপি সদস্য খলিল সরদার, নুরুল হক, নিহতের ভাই আল-আমিন, খালা আকলিমা খাতুন, ফাইমা খাতুন প্রমুখ।

 

এসজি/ডেক্স


আপনার মতামত লিখুন :

নিজস্ব প্রতিবেদক। ডেক্স