কপিলমুনিতে ৩ জন মহিলা পকেটমারকে আটক করেছে পুলিশ

প্রকাশিত: ৭:৪৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৮, ২০২০ | আপডেট: ৭:৪৮:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৮, ২০২০

কপিলমুনিতে তিন জন মহিলা পকেটমারকে আটক করেছে কপিলমুনি ফাঁড়ি পুলিশ। আটককৃতরা হলেন আশাশুনি উপজেলার আনুলিয়া একসরা গ্রামের স্বামী পরিত্যাক্তা সালেহা বেগম (৪৫) পিতার নাম সিদ্দিক শেখ, একই গ্রামের আজগার আলীর স্ত্রী রিতু (২৫) এবং আসমা খাতুন (১৮)।

পুলিশ জানায়, রবিবার কপিলমুনি বাজারে হাটের দিন বেলা ১২ টায় স্থানীয় মেগাসিটি ফুডের সামনে এরা একজন হাটুরের পকেট থেকে টাকা নেওয়ার সময় পাশে দাড়ানো একজন ব্যক্তি দেখতে পায়। এ ঘটনা পুলিশকে খবর দিলে দ্রূত কপিলমুনি পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ সঞ্জয় দাস ও এ এস আই প্রভাষ মিত্র ঘটনা স্থানে এসে তিনজন মহিলা পকেটমারকে আটক করে ফাঁড়িতে নিয়ে আসে। এরা পকেট মারার কথা পুলিশের কাছে স্বীকার করে। পুলিশ এ সময় তাদের কাছ থেকে পকেট মারার উনত্রিশ শত দশ টাকা উদ্ধার করেছে।

তবে নয় শত টাকা বাদে অবশিষ্ট টাকা তারা অন্যের পকেট থেকে নিয়েছে বলে দাবী করে।পকেটমার দলের আটক সদস্য আসমা খাতু একসরা দাখিল মাদ্রাসার নবম শেনীর ছাত্রী।অভাবের তাড়নায় খালা সালেহা বেগমের সাথে পকেট মারে বলে সে জানায়।

এ দিকে কপিলমুনি বাজারে প্রায়ই হাটের দিন কিম্বা ঈদ বা পুজা উপলক্ষে ক্রেতাদের ভীড়ের সময় নারী পুরুষের কাছ থেকে পকেট মারার ঘটনা ঘটে।জানা যায় এরা সংগবদ্ধ পকেটমার দল, দীর্ঘদিন ধরে এরা এ কাজ করে আসছে বলে তারা জানায়। সালেহা বেগম এদের পরিচালনা করে। এ ঘটনায় পাইকগাছা থানায় এদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছিল।


আপনার মতামত লিখুন :

এইচ এম এ হাশেম। নিজস্ব প্রতিবেদক। কপিলমুনি, খুলনা